• info@rajdhanimovers.com
  • Call Us : +8801755-940522
বাসা বদল

খুব সহজে বাসা বদলে সেরা ৫টি টিপস

বাসা বদলে বিরাট সমস্যার ব্যপার। কমবেশি অনেকের এই সমস্যা পড়তে হয়। যারা ভাড়া বাসায় থাকেন তাদের তো এই ব্যাপারটা শেষ থাকে না। বাসা বদলানো সময় কিছু এদিক সেদিক হলেই সমস্যা শেষ থাকে না। তবে একটু সব গুছিয়ে কাজ করলেই কিন্তু বাসা বদলানো নিয়ে তেমন সমস্যা পোহাতে হয় না। যদি আপনি বাসা বদলের কাজটাকে একটু ছোট ছোট কাজে ভাগ করতে পারেন, তবে দেখবেন খুব সহজেই ঝামেলামুক্ত ভাবে বাসা পরিবর্তন করে ফেলতে পারবেন অনায়াসে।বাসা বদলানো সহজ করার সবচেয়ে প্রয়োজনীয় কিছু টিপস জানতে চাইলে পড়তে থাকুন।

ফোন, ইন্টারনেট,সংযোগ

ডিশ সংযোগ এসি গিজার বাসা বদলে সময় অন্তত ৫ দিন আগে থেকে আপনার এসি,গিজার, ইলেকট্রনিক, ইন্টারনেট, ডিশ ও ল্যান্ড ফোনের অফিসে সাথে যোগাযোগ করে রাখুন। তাদেরকে নতুন বাসার ঠিকানা জানিয়ে দিন, তাহলে দেখবেন নতুন বাসায় গিয়ে এসি, গিজার ইন্টারনেট, টিভি কিংবা ফোনের নিয়ে ঝামেলায় পড়তে হবে না।

পিকআপ,ভ্যান/কাভার ভ্যান/ট্রাক ভাড়া

বাসার আসবাবপত্র নেয়ার জন্য পিকআপ, ভ্যান, কাভার ভ্যান অবশ্য ট্রাক তো লাগবেই। বাসার ফার্নিচার বা জিনিসের পরিমাণ অনুমান করে আগে থেকেই পিকআপ,ভ্যান বা ট্রাক ভাড়া করে রাখুন, নাহলে শেষ মূহূর্তে আবার নাও পেতে পারেন। ভ্যান,পিকআপ,কাভারভ্যান বা ট্রাক যেটাই ভাড়া করবেন, আগে থেকেই তাদেরকে বাসা বদলানো দিনে নতুন বাসার ঠিকানা ও সময় জানিয়ে দেবেন। আরও ভালো হয় যদি বাসা পরিবর্তনে আগের দিন রাতে গাড়ির চালকের ফোন দিয়ে আবার একটু মনে করিয়ে দিতে পারেন যেনো সময় মতো উপস্থিত থাকেন তাহলে দেখবেন, তারা সময় মত এসে পড়বেন।

নতুন বাসা পরিষ্কার পরিছন্নতা 

নতুন বাসার দরজা-জানালার পর্দার মাপ নিয়ে রাখিবেন আগে থেকে নিয়েই সেলাই করতে দিয়ে দিন। নতুন বাসায় যাওয়ার ১/২ দিন আগে গিয়ে দেখে আসুন বাসা ভিতর ময়লা অবস্থায় আছে কিনা। যদি বাসার ভিতর ধুলাবালি ময়লা থাকে তাহলে সেগুলো পরিষ্কার করিয়ে নিবেন। আবার বাসা রঙ না করা থাকলে বাড়ি আলা কে বলবেন রঙ করে দিতে। কিচেঁন রুম,বাথরুমগুলোকে ভালো করে পরিষ্কার করিয়ে রাখুন আগে থেকেই।

প্যাকিং জন্য

প্যাকিং এর জন্য আগে ভাগেই যোগার করে রাখুন, যেমন- বস্তা, সুতলি,গামটেপ ও কাগজের বাক্স কার্টন। এরপর একসপ্তাহ আগেই প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো ছাড়া অন্যান্য জিনিসপত্র প্যাকিং এর কাজ সেরে ফেলুন। প্যাকিংএর কাজের সময় কোন কার্টন বাক্সে কি রেখেছেন সেটা একটা কাগজে লিখে তালিকা তৈরি করে বাক্সের গায়ে ভালো করে আঠা দিয়ে লাগিয়ে নিন। তাহলে,জিনিসপত্র সহজে খুঁজে পেতে সুবিধা হবে। এবং কাঁচের জিনিসপত্র বাক্সে ভরার আগে বাবুল কাগজে বা কাপড়ে পেঁচিয়ে নিবেন তারপরে ভরবেন, তাহলে ভেঙ্গে যাওয়া ভয় থাকবেনা।

রান্নাঘরের জিনিসপত্র

রান্নাঘরের জিনিসপত্র ২/৩ দিন আগে থেকেই আচ্ছতে আচ্ছতে খালি করা শুরু করবেন। কাঁচা বাজার, মাংস খাদ্য সামগ্রী ইত্যাদি থাকলে রান্না করে ফেলুন। ফ্রিজ খালি না করলেও চলবে যদি আইস ব্যাক্স কার্টন থাকে। আর খেয়াল করে বাসা বদলানো আগের দিনে বেশি বেশি করে রান্না করে রাখবেন, তাহলে যেদিন বাসা বদলাবেন সেদিনে আর রান্না-বান্না করার সময় অথবা সুযোগ পাবেন না। কারণ বাসা বদলাতে সারাদিন সময় লাগবে। এবং নতুন বাসাতে গ্যাস লাইনে সংযোগ দিতে সময় লাগতে পারে ,তাই আগে থেকেই প্রস্তুতি নিলে বাসা বদলানো ঝামেলা থাকবেনা।ঝামেলাহীন বাসা বদল

এবং সবারই জানা বাসা বদলানোর কাজগুলো এমনিতে খুব ঝামেলা এবং কষ্টকর। তবে বাসার সবাই মিলে বাসার কাজগুলো ভাগাভাগি করে নিলে সহজ হয়ে যাবে অনেকাংশে। এমনিতে বাসা বদলানো কাজগুলো করতে প্রয়োজন হয় গাড়ি ঠিক করা বাজারে গিয়ে প্যাকিংএর জিনিসপত্র কিনে আনা ও প্রফেশনাল টেকনিশিয়ান ও লেবার খুঁজে পাওয়া কষ্টকর। আনেকে এই সমস্ত কাজগুলো বিরক্তিকর মনে করেন। তবে রাজধানী মুভার্স কোম্পানির হোম শিফটিং প্যাকেজ নিলে আপনি বেশ আরামেই নিশ্চিন্তে বাসা বদলানো কাজ সেরে ফেলতে পারবেন । রাজধানী মুভার্স কোম্পানি সার্ভিস প্রোভাইডাররা দক্ষ ও ভেরিফাইড, তাই কোন টেনশনই করতে হবে না আপনাকে সবকিছুর দায়িত্ব নিবেন রাজধানী মুভার্স বাসা বদলানো এই কোম্পানি ।বাসা বদল সব ঝামেলা কাজের শেষে আপনার নতুন বাসায় নতুন শুরু হোক সুন্দর ও সহজ।